জুলাই 17 – দানিয়েলৰ সত্যতা!

” কিন্তু তাঁরা তাঁর কাজের মধ্যে কোন ভ্রষ্টতা বা ব্যর্থতা খুঁজে পেলেন না, কারণ তিনি বিশ্বস্ত ছিলেন। কোন ভুল বা অবহেলা তাঁর মধ্যে পাওয়া যায় নি। ( দানিয়েল ৬:৪)।

আমাদের ঈশ্বর বিশ্বস্ত। তাঁকে ভালবাসে এমন সমস্ত সাধুও বিশ্বস্ত বলে প্রমাণিত হয়। আমরা অনেক প্রকৃত সাধুদের জীবন নিয়ে ধ্যান করছি। আসুন আজ আমরা দানিয়েলের বিশ্বস্ততায় ধ্যান করি।

তার দোষ খুঁজতে ড্যানিয়েলকে ঘিরে দলে দলে দলে দলে দলে একটি দল। নিষ্ঠুর লোকেরা হিংসা করে তার বিরুদ্ধে উঠেছিল। তারা সাধারণ মানুষ ছিল না। শাস্ত্র বলে, তখন সেই সমস্ত অন্য পরিচালকেরা ও শাসনকর্তারা, রাজ্যর জন্য যে কাজ দানিয়েল করেছিলেন তার ভুল বের করতে তাঁরা চেষ্টা করলেন, কিন্তু তাঁরা তাঁর কাজের মধ্যে কোন ভ্রষ্টতা বা ব্যর্থতা খুঁজে পেলেন না, ( দানিয়েল ৬:৪)।

শয়তানের নামে হাই, “কারণ যে আমাদের ভাইদের ওপর দোষ দিত, “(প্রকাশিত বাক্য ১২ :১০)।

কিন্তু দানিয়েল ঈশ্বরের দৃষ্টিতে, মানুষ ও রাজার কাছে বিশ্বস্ত ছিলেন। ঈশ্বরের প্রতিশ্রুতি কি? এটি ‘ছাড়া আর কিছুই নয় বেশ! উত্তম ও বিশ্বস্ত দাস, তুমি অল্প বিষয়ে বিশ্বস্ত হয়েছ, আমি তোমাকে অনেক বিষয়ের উপরে নিযুক্ত করব,(মথি ২৫:২৩)। যখন ড্যানিয়েলকে ব্যাবিলনে নির্বাসনে আনা হয়েছিল, তখন ঈশ্বর তাকে বিশ্বস্ত বলে মনে করেছিলেন। ঈশ্বর দেখলেন যে তিনি রাজার খাবারগুলি খেতে অস্বীকার করে অশুচি হওয়া থেকে দূরে থাকতে কতটা ধর্মপ্রাণ ও বিশ্বস্ত ছিলেন। এ কারণেই ঈশ্বর তাঁকে অনেক কিছুর উপর কর্তৃত্ব করেছিলেন। অনেক রাজা এসে গুম হয়ে গেলেন। কিন্তুড্যানিয়েল অগ্রগতিতে অগ্রসর হতে থাকে এবং শীর্ষ অবস্থানে পৌঁছেছে।

ঈশ্বরের প্রিয় সন্তানেরা, আপনি কি দানিয়েলের মতো বিশ্বস্ত থাকবেন? “কারণ সদাপ্রভুর প্রতি যাদের হৃদয় এক থাকে, তাদের জন্য নিজেকে বলবান দেখাবার জন্য তাঁর চোখ পৃথিবীর সব জায়গায় থাকে।(2 বংশাবলি ১৬:৯)।

এমনকি রাজা দানিয়েলের সত্য বুঝতে পেরেছিলেন। তিনি দানিয়েলকে “জীবিত ঈশ্বরের দাস দানিয়েল” ডেকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, “দানিয়েল, জীবন্ত ঈশ্বরের দাস, সেই ঈশ্বর কি তোমাকে সিংহের মুখ থেকে রক্ষা করতে পেরেছেন যাঁর সেবা তুমি সব দিন কর? আপনি কি জানেন দানিয়েলের উত্তর কী ছিল? তখন দানিয়েল উত্তর দিয়ে বললেন, “হে মহারাজ, আপনি চিরকাল বেঁচে থাকুন!  আমার ঈশ্বর তাঁর দূত পাঠিয়েছিলেন এবং সিংহদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছেন। তারা আমাকে আঘাত করে নি। কারণ ঈশ্বরের চোখে আমি নির্দোষ বলে গণ্য হয়েছি এবং হে মহারাজ, আপনার কাছেও তাই, আর আমি আপনার কোন ক্ষতি করি নি।”,(দানিয়েল ৬:২১,২২)।

‘বিশ্বস্ততা’ খ্রিস্টান জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। দায়ুদ বলেছেন, ‘দেখুন, আপনি অন্তরের সত্যে আনন্দিত হন’ “তুমি আমার হৃদয়ের মধ্যে জ্ঞানের শিক্ষা দেবে।” (গীতসংহিতা ৫১:৬) ঈশ্বরের নাম গৌরবময় হবে যখন আপনি ঈশ্বর এবং লোকদের প্রতি বিশ্বস্ত থাকবেন। আপনার প্রচেষ্টা সফল হবে।

ধ্যান করাব় জন্য:”বিশ্বস্ত লোক অনেক আশীর্বাদ পাবে; কিন্তু যে ধনী হবার জন্য তাড়াতাড়ি করে, সে দন্ডিত হবে ( হিতেপদেশ ২৮ :২০)।

Article by elimchurchgospel

Leave a comment